বিশ্বনবীর বুকে

 

✏️এটিএম গোলাম ছারওয়ার

অমানিশার আঁধার-কালো জমিনবাসীর পর,
তাগুত এসে গ্রাস করে নেয় মানুষের অন্তর।
সরল পথের নাইরে দিশা হারিয়ে গেছে দিক,
তাওহীদের এক পথ হারিয়ে হয়েছে মুশরিক।
সীমা ছাড়ায় জাহেলিয়াত, কাঁদে জমিন দুখে,
আলোকিত চাঁদ উঠেছে আঁধার মরুর বুকে!

জুলুম যখন যায় ছাড়িয়ে সকল সীমা তার,
পাষাণ হৃদয় করলো দাফন জীবন্ত কন্যার!
আকাশ কাঁদে বেদনাতে অশ্রুতে চিকচিক,
মরুর বুকে পথ হারালে কে দেখাবে দিক?
বুক ফেটে যায় তেষ্টাতে হায় মরে সবাই ধুঁকে,
রহমতের বৃষ্টি তখন নামলো মরুর বুকে!

জমিন কাঁদে, মজলুমেরা করছে হাহাকার,
পশুর মতো জীবন যাপন, হত্যা ব্যভিচার।
মাঝ দরিয়ায় মাঝিবিহীন পায় না তরী দিক,
আঁধার কেটে হেসে ওঠে তারকা ঝিকমিক।
কান্ডারি ওই হাল ধরিছে, নূরের দ্যুতি মুখে,
শীতল নদীর শান্ত ধারা তপ্ত মরুর বুকে!

আলোয় ভরা সবুজ কানন চিরসুখের দ্বার,
শাফায়াতের ভেলায় চড়ে সিরাত হবো পার।
মরুর বুকে কাফেলাও হারায় না আর দিক,
পথহারা সব পাপিষ্ঠরা পথ খুঁজে পায় ঠিক।
ঘুচে গেছে দুঃখ সকল হাসলো জগত সুখে,
তামাম জগত ঠাঁই নিয়েছে বিশ্বনবীর বুকে!

🕖 রচনাকাল:
১২ রবিউল আউওয়াল ১৪৪২,
৩০ অক্টোবর ২০২০, জুম্মাবার।

✏️প্রভাষক, সোনাপুর কলেজ, নোয়াখালী।

Updated: October 30, 2020 — 2:41 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *