স্মৃতি চারন

স্মৃতিতে দীন মোহাম্মদ

শামছুজ্জামান নিজাম:

নোয়াখালীর দক্ষিনাঞ্চলে তৎকালীন প্রথম ঢাবি’র বোটানিতে এম.এসসি আমার বাবা মরহুম আলহাজ্ব দীন মোহাম্মদ। সবাই বাবাকে এম.এসসি সাহেব বলে সম্বোধন করত।আজ উনার ১৬ তম মৃত্যু বার্ষিকী।

আমার বাবা শিক্ষা জীবন শেষ করে পরমানু শক্তি কমিশনে চাকরি করতেন।৭০ এঁর বন্যার পর দাদার আদেশে চাকরি ছেড়ে এলাকায় চলে আসেন।শিক্ষা বিস্তারে সময় দেন।এলাকায় বিভিন্ন স্কুল,মাদ্রাসা,মসজিদ,মক্তব, কলেজ বাস্তবায়নে অনন্য অবদান রাখেন।

শিক্ষা বিস্তারের অংশ হিসেবে “উত্তম আদর্শ বিদ্যা নিকেতন “স্থাপন করেন। পরবর্তীতে নারী শিক্ষা প্রসারে স্থাপিত হয় ১৯৯২ খ্রি: চরবাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
তিনি উক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ছিলেন।
অবসর নেন ২৮/০২/২০০১ খ্রি:। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিবেদিতভাবে ক্লাস নিতেন।

সহজ – সরল ও হালাল জীবন যাপনে উনি ছিলেন আমাদের পথ প্রদর্শক। আজকের এই দিনে কোরান খতমের মাধ্যমে বাবার জন্য,পরিবারের সদস্য বাংলাদেশস্ত ওয়াল্ড ইসলামিক কল সোসাইটির সম্মানিত সভাপতি,বিভিন্ন ধর্মীয় গ্রন্থের লেখক আমার মেঝো ফুফা মরহুম আলহাজ্ব মাওলানা নূর হোসাইন সাহেব ও সেজো মামা মরহুম আলহাজ্ব মাঈন উদ্দিন মানিক সহ কবরে শায়িত সবার জন্য দুয়া করা হয়।

আমরা যেন বাবার আদর্শ নিয়ে পথ অতিক্রান্ত করতে পারি এবং আমার মরহুম বাবা কে যেন মহান আল্লাহ জান্নাতের মেহমান হিসেবে কবুল করে – সবাই দুয়া করবেন।আমিন।

লেখক: প্রধান শিক্ষক, চরবাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও দীন মোহাম্মদ এর ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: কপিরাইট সুবর্ণবার্তা !!
Close
Close